দেখে নিন কীভাবে একটি উন্নতমানের কনটেন্ট তৈরি করবেন

ট্রিকসবিএন এ আপনাদের স্বাগতম।

নিচের লেখাগুলো অনুসরণ করলে আপনার সাইটে অথবা ব্লগে এটকি ভালো মানের কনটেন্ট তৈরি করতে পারবেন। এজন্য পুরো পোষ্টটি পড়ুন।

কনটেন্ট তো প্রায় সবাই
লিখতে পারে
। কিন্তু
সেই কনটেন্ট এর
সফলতা নির্ভর করে
কনটেন্ট এর মানের উপর। যদি
কনটেন্ট মানসম্মত
না হয় তাহলে
ভিজিটর যেমন
পড়বে না তেমনি
সাইটের মানও কমে
যাবে। তবে আমরা
কনটেন্ট এর
মানের উপর জোড় না
দিয়ে আমরা নজর
দেই
সংখ্যার উপর।
দিনে দুই থেকে তিনটা
কনটেন্টও লিখতে
দ্বিধা করি না
কিন্তু সেই
কনটেন্ট হয় নিম্ন
মানের। তবে অল্প
কিছু স্টেপ ফলো
করে আপনি সহজেই
একটি সেরা
মানসম্পন্ন
কনটেন্ট তৈরি করতে
পারবেন।

  • কনটেন্ট
    লেখার আগে ভেবে নিন।
    ধরুন আপনি কোনো
    একটি বিষয় নিয়ে
    কনটেন্ট লিখবেন
    কিন্তু আপনি সেই
    সম্বন্ধে ভালো জানেন না, তাহলে
    কী কনটেন্ট এ তা
    ফুটিয়ে তুলতে
    পারবেন? অবশ্যই
    না। সেজন্য যে বিষয়
    নিয়ে কনটেন্ট
    লিখবেন সেটা
    সম্বন্ধে গুগল,
    উইকিপিডিয়ায় খুঁজে
    সঠিক তথ্য বাছাই
    করুন।
    যদি মনে করেন
    আপনি সেই বিষয়ে
    জানেন তবুও একটু
    খুঁজে দেখুন, কোনো
    কিছু আপডেট হলে
    সেটা সহজেই
    জানতে পারবেন।
  • সবসময়
    সঠিক তথ্য দিন
    এবং সত্য কথা
    বলুন।
    আমাদের একটা
    ট্রেন্ড আছে আমরা
    কোনো বিষয়ে সঠিক
    কিনা সেসব কিছু না
    দেখেই তথ্য দিয়ে
    দেই। এটা ভুল, কোন
    সোর্স থেকে এই তথ্য
    পেয়েছেন সেটা
    ভালোভাবে যাচাই
    করুন। আর্টিকেল এর
    গুরত্ব বাড়াতে
    অনেকে
    মিথ্যা বলে থাকেন
    এতে আপনার
    অডিয়েন্স ক্ষুব্ধ হয়
    এবং তার প্রতিফলন
    পেয়ে যান
    কমেন্টে।
    তাই মিথ্যা
    কথা এবং
    ভুল তথ্য দেয়া থেকে
    বিরত থাকুন।
  • টাইটেল
    সংক্ষিপ্ত
    এবং পরিষ্কার করে দেওয়া উচিত।
    টাইটেল এই অনেকে
    পুরো আর্টিকেল তুলে
    ধরেন। এতে
    আর্টিকেল এর মান
    খারাপ হয়। একটা
    পণ্যের বিজ্ঞাপন
    দেখেই মানুষ
    সেইটা কিনতে যায়
    এবং আর্টিকেল এর
    বিজ্ঞাপন হচ্ছে
    টাইটেল। বিজ্ঞাপন
    যেমন একটা
    সিনেমার মতো
    দীর্ঘ হয় না তেমনি
    টাইটেল ও হওয়া
    উচিত সংক্ষিপ্ত।
    সঠিক টাইটেল এর
    কিছু বৈশিষ্ট্য আছে।
    যেমন-
    ১। টাইটেল এ কোনো
    ইমোজি ব্যবহার
    করবেন না।
    ২। টাইটেল হতে হবে
    প্রশ্নবোধক।
    যেমন কীভাবে
    এটা করে?
    কিংবা এটা করব
    কিভাবে? এরকম
    টাইটেল হলে
    সবাই আগ্রহ
    দেখায়।
    ৩। টাইটেল মাথা
    ঘোরানো নিয়ম,
    মাস্ট দেখুন, পরে
    পস্তাবেন, আর
    পাবেন না, মিস
    হয়ে যাবে
    এরকম শব্দ ব্যবহার করবেন না।
    কোনো কনটেন্ট
    এর ভিউ আসে
    সাধারণত সার্চ
    থেকে। আর কেউ কি
    কখনো এরকম কিছু
    লিখে সার্চ দেয়?
    যদিও আমাদের
    দেশে সার্চ থেকে
    তেমন অডিয়েন্স
    আসে না তবুও
    এধরণের শব্দ
    পরিহার করুন।
    ৪। টাইটেল খুব দীর্ঘ
    হবে না, সর্বোচ্চ
    ১০ টি শব্দের মধ্যে টাইটেল দেওয়া উচিত।
    ৫। টাইটেল এর সাথে
    থাম্বনেইল এবং
    কনটেন্ট এর মিল থাকতে হবে।
  • শুরুতে
    সম্ভাষণ দিবেন
    না।
    অনেকে কনটেন্ট
    এর প্রথম থেকে
    ১০/১২ লাইন শুধু সম্ভাষন এই দেন,
    কনটেন্ট এর
    প্রত্যেক শব্দ
    মূল্যবান, তাই অযথা
    আজেবাজে কথায়
    নষ্ট করবেন না। এখানে
    কেউ আপনার
    সালামের উত্তর
    দেবে না বা আপনার
    সম্পর্কে জিজ্ঞাসা
    করবে না। সবাই
    আপনার খোঁজ খবর না
    নিয়ে আর্টিকেল
    পড়তে এসেছে।
    তাই, কেমন আছেন,
    ভালো তো আছেন
    নিশ্চয়ই, আমাদের
    সাথে থাকলে সবাই
    ভালো থাকে, আমার
    সালাম নিবেন
    এসব লেইম কথা বলে
    কনটেন্ট এর
    শুরুতে ভেজাল
    বাধিয়ে দিবেন
    না। এসব কথা
    লিখলে সবাই
    বিরক্ত হয়। তাই
    শুরুতে কোনো
    সম্ভাষণ দিবেন
    না।
  • শুরুটা হোক
    সামারি দিয়ে।
    সামারি আমরা
    অনেক সময় লিখে
    থাকি। বিশেষ করে
    পরীক্ষাতে। একটা
    বড় গল্প থাকে
    সেখান থেকে
    প্রধান প্রধান
    পয়েন্ট গুলো
    সামারিতে তুলে
    ধরতে হয়। তবে,
    কনটেন্ট এর
    সামারি
    হবে একটু ভিন্ন।
    সামারিতে লিখবেন
    সমস্যা গুলো যেই
    সমস্যার সমাধান
    আছে আপনার
    আর্টিকেলে।
    আপনি কি জানেন,
    কখনো কি ভেবেছেন,
    হয়তো এরকম
    সমস্যায় আপনিও
    পড়েছেন এই
    ধরণের শব্দের
    প্রয়োগ হবে
    সামারিতে। পুরো কনটেন্ট
    এর যত মেইন টপিক
    এবং যেসব সমস্যা
    আপনি কভার করছেন
    সেগুলো লিখবেন
    এখানে।
  • ছোট ছোট
    প্যারাগ্রাফে
    লিখুন।
    অনেক বড়
    প্যারাগ্রাফ হলে
    দেখতেও যেমন
    খারাপ লাগে
    তেমনি পড়তেও
    সমস্যা হয় তাই
    মোবাইল ভিউ এর
    ক্ষেত্রে ৩/৪
    লাইনের
    প্যারাগ্রাফ এবং
    কম্পিউটার ভিউ
    ক্ষেত্রে ২/৩
    লাইনের
    প্যারাগ্রাফ
    ব্যবহার করুন।

  • প্রথমে সম্ভাষণ
    দিতে নিষেধ
    করেছিলাম তাই
    এখন সবার শেষে
    সর্বোচ্চ এক লাইনে
    সম্ভাষণ লিখুন।
    যেমন ভালো থাকুন,
    সুস্থ থাকুন এই
    কামনায় শুভ বিদায়
    বা এই কামনায়
    আবার দেখা হচ্ছে
    পরবতী আর্টিকেলে
    এভাবে লিখুন।
  • ধন্যবাদ সবাইকে

    Aponex
    A man who loves to work with technology & always tries to make others happy by helping them in their needs 💕💕